top of page

উদ্যোক্তাদের জন্য সেরা ৮ সিনেমা

উদ্যোক্তাদের জন্য সেরা ৮ সিনেমা


বিনোদনের অন্যতম উপায় হিসেবে আমরা প্রায়শই সিনেমা বা চলচ্চিত্রকে বেছে নেই। আজ আপনাদেরকে এমন কিছু সিনেমার খবর দেব যেগুলো একই সাথে শিক্ষামূলক এবং বিনোদনধর্মী। এসকল চলচ্চিত্র আপনাকে একজন উদ্যোক্তা হিসেবে বেড়ে উঠতে অনুপ্রেরণা দিবে এবং উদ্যোক্তা হবার জন্য প্রয়োজনীয় কিছু দক্ষতা শাণিত করার শিক্ষাও দিবে।




৮টি সিনেমার এই তালিকাটি যেকোন উদ্যোক্তার জন্য উপযুক্ত। চলুন তবে তালিকাটি দেখে নেই –

১.স্টার্টআপ ডটকম - ২০০১ সালে মুক্তি পাওয়া এই সিনেমাটি কিছুটা তথ্যচিত্রধর্মী। এ সিনেমায় ডটকম পিরিয়ডের বাস্তবচিত্র ফুটে উঠেছে এবং এই খাতে ব্যবসার বেশ কিছু খুটিনাটি এ সিনেমায় পাওয়া যাবে। এছাড়াও স্টার্টআপ ডটকম এ রয়েছে ব্যবসায় পার্টনারশিপ আপনার বন্ধুত্বের পথে কিভাবে হুমকি হয়ে দাঁড়াতে পারে তার সতর্কবার্তা।

স্টার্টআপ ডটকম থেকে আপনি দলীয় কাজ, নেতৃত্ব, পুঁজি সংস্থান, ব্যবসা বাড়ানোর কৌশল, উদ্যোগী দক্ষতার বিকাশ ও ব্যবস্থাপনায় দক্ষতা সম্পর্কে বিস্তৃত ধারণা পাবেন।

২. ওয়াল স্ট্রিট - ওয়াল স্ট্রিট এর বাণিজ্যিক ওঠা-নামা এবং তার সাথে সংশ্লিষ্ট ব্যক্তিবর্গের জীবন খুব কাছ থেকে উপস্থাপন করা হয় এই সিনেমায়। বাড ফক্স নামক এক শেয়ারের দালালের পরিপ্রেক্ষিতে উচ্চাকাঙ্খা ও সফলতার ক্ষুধাকে তুলে ধরা হয়েছে। অর্থনৈতিক যে রোলারকোস্টার তাদের নিত্যদিনের সাথী তার পরিচয় পাওয়া যাবে ২০১২ সালে মুক্তি পাওয়া এই সিনেমায়।

ওয়াল স্ট্রিট সিনেমাটি থেকে করপোরেট বানিজ্য, পুঁজি বাজার, বিনিয়োগ, কোম্পানির বানিজ্যিক নৈতিকতা, দফতর ব্যবস্থাপনা ইত্যাদি বিভিন্ন দিক সম্পর্কে শিক্ষা লাভ করা যাবে।

৩. টুয়েলভ অ্যাংরি মেন - এই সিনেমাটি একটি অসাধারণ কোর্ট রুম ড্রামা। এতে দলগত আচরণের পেছনে থাকা মনস্তাত্ত্বিক বিষয়গুলো দারুণভাবে ধরা পরে। একই সাথে দেখা যায় বিভিন্ন রকমের নৈতিকতার মানদন্ডের মধ্যে দ্বন্দ্ব। গুরুত্বপূর্ণ নানান সিদ্ধান্ত গ্রহণের প্রক্রিয়াও এই সিনেমা থেকে শেখা যায়।

টুয়েলভ আ্যংরি মেন সিনেমা আপনাকে শেখাবে সন্ধিস্থাপন কৌশল, এক্য গড়ে তোলার প্রক্রিয়া, প্ররোচনা পদ্ধতি, দ্বন্দ্ব সমাধান ইত্যাদি সম্পর্কে।

৪. দ্যা সোশাল নেটওয়ার্ক - আজকের অতি জনপ্রিয় সোশাল মিডিয়া ফেসবুকের গল্প নিয়ে তৈরি এই সিনেমাটি। ফেসবুকের কর্ণধার মার্ক জাকারবার্গ ও তার বন্ধু সেভরিনের পার্টনারশিপ, ব্যবসা শুরু এবং সে পথে আসা বিভিন্ন বাধা-বিপত্তির মোকাবেলা - সব মিলেই এই সিনেমার কাহিনি। ফেসবুক পছন্দ করুন আর না করুন এই সিনেমার মূলভাবের শক্তি অস্বীকার করা অসম্ভব।

টিমওয়ার্ক, উদ্যোগ নেয়া, লক্ষ্যে লেগে থাকা, পার্টনারশিপের যাবতীয় সমস্যা সম্বন্ধে দ্যা সোশাল নেটওয়ার্ক সিনেমাটি অনেক কিছু শেখাতে পারে।



৫. দ্যা গডফাদার ট্রিলজি - গডফাদার সিরিজের তিনটি সিনেমা সম্ভবত উদ্যোক্তাদের জন্য সবচেয়ে উপযুক্ত সিনেমাগুলোর মধ্যে পড়ে।এই সিনেমায় নেটওয়ার্ক গড়ে তোলা, সম্পর্ক তৈরি ও বন্ধুত্বের গুরুত্ব উপস্থাপন করা হয়েছে অতি শৈল্পিক ভংগীতে। তাছাড়া এই ট্রিললজিতে রয়েছে বিনোদনে ভরপুর কাহিনি যা আপনাকে আকড়ে ধরে থাকবে সিনেমার শেষ পর্যন্ত এবং এই বিষয়টি আপনাকে আপনার ভবিষ্যৎ উদ্যোক্তা জীবনের জন্য প্রস্তুত করে তুলবে।

এই অসাধারণ ট্রিলজিটি থেকে আপনি শিখতে পারবেন প্রতিযোগিতামূলক চিন্তাধারা, বন্ধুত্ব ও মিত্র গড়ে তোলা, কর্পোরেট সফলতা ও কর্পোরেট জীবনের নানান দিক। ঐক্য ও সহোযোগিতাও এই সিনেমায় ফুটে উঠেছে।

৬. দ্যা উলফ অব ওয়াল স্ট্রিট- জর্ডান বেলফোর্টের জীবনের সত্য কাহিনি অবলম্বনে এই সিনেমার গল্প প্রবাহিত হয়। তার মাদকের সান্নিধ্য ও অনৈতিকতা ভরা জীবনধারা এই সিনেমায় বাস্তব রূপ পায়। অতি আশায় যে হিতে বিপরীত হতে পারে তার উদাহরণও এই সিনেমায় রয়েছে।

এই সিনেমা থেকে চতুর ব্যবসায়িক মানসিকতা শেখা যায়, সফলতা পিপাসুদের জন্য এই সিনেমাটি দেখা আবশ্যক।

৭. গ্লেংগ্যারি গ্লেন রস্- নিউইয়র্ক সিটি রিয়েল এস্টেট অফিসগুলোর পেছনে ঘটে যাওয়া ব্যক্তিগত জীবনের যত ঘটনা - বিচ্ছেদ, সম্পর্কের ওঠানামা ইত্যাদি নিয়ে এই সিনেমার কাহিনি এগিয়ে যায়।

এই সিনেমা থেকে উদ্যোক্তার জীবনের কাজের চাপ, পেশাগত ও ব্যক্তিগত জীবনের মধ্যে ভারসাম্য রক্ষা করা ইত্যাদি বিষয়ে জানতে পারবেন। আর সেলস নিয়ে আগ্রহীদের জন্য গ্লেংগারি গ্লেন রস্ দেখা অতি জরুরি।

৮. দ্যা মার্চেন্ট অব ভেনিস - শেক্সপিয়ার এর লেখা কাহিনি অবলম্বনে অ্যাল পাচিনোর এই সিনেমায় সর্ব সময়ের সেরা সিনেমারগুলো একটি। এই সিনেমায় ইউরোপের সাম্প্রদায়িকতা ও তাকে কেন্দ্র করে বেড়ে ওঠা ব্যবসায়িক দ্বন্দ্ব বাস্তবভাবে ফুটে উঠেছে।সিনেমাটি বেশ বিনোদন মূলক হলেও এই সিনেমার কেন্দ্রীয় চরিত্রগুলো মানবজীবনের অনাকাঙ্ক্ষিত মোড়গুলো ও বন্ধুত্ব-শত্রুতার মানদন্ড অতি সুস্পষ্ট।

এই সিনেমাটি চাতুর্য ও বিচক্ষনতা শিখবার অতি উৎকৃষ্ট উৎস। ব্যবসার বিভিন্ন কৌশল, ব্যবসার পতন এবং তা সামাল দেয়ার মূলমন্ত্র এই সিনেমায় পাবেন।

এছাড়াও আরো কিছু সিনেমার নাম উল্লেখ না করলেই নয়। যেমন - 'ডেভিল ওয়্যারস প্রাডা' সিনেমায় বিভিন্ন ব্যবসায়িক স্ট্র‍্যাটেজি ও কর্মস্থলে ভালো পারফরমেন্স এর শিক্ষা রয়েছে। 'থ্যাংক ইউ ফর স্মোকিং' থেকে শেখা যায় বিজ্ঞাপন ও প্রচারণা সম্বন্ধে।'ক্যাচ মি ইফ ইউ ক্যান' আপনাকে দেবে অনুপ্রেরণা ও নতুন উদ্যোগের আইডিয়া।

একজন উদ্যোক্তা হতে হলে অবশ্যই নিজেকে অনেক আগে থেকে প্রস্তুত করতে হবে। আর এই প্রস্তুতি যদি সিনেমা দেখার মত বিনোদন মূলক কোনো মাধ্যম হয়,তবে তো কথাই নেই।তাই আর দেরি না করে বসে যান পপকর্ন নিয়ে আর একটি একটি করে দেখে ফেলুন ওপরের তালিকায় উল্লেখিত ৮ টি অসাধারণ সিনেমা।

#উদ্যোক্তা#সিনেমা#অনুপ্রেরণা

663 views0 comments
bottom of page