ডিভিডি ব্যবসা থেকে আজকের নেটফ্লিক্স

  নেটফ্লিক্স অনলাইন ভিডিও স্ট্রিমিং জগতের এক সুপরিচিত নাম। সিনেমা, টেলিভিশন সিরিজ দেখতে ভালোবাসে কিন্তু নেটফ্লিক্স চেনে না এমন মানুষ খুঁজে পাওয়া মুশকিল। বর্তমানে এই ভিডিও স্ট্রিমিং সাইটের গ্রাহক সংখ্যা প্রায় ১২ কোটিরও বেশি! বছরে আয় করছে বিলিয়ন ডলার। তুমুল জনপ্রিয় সাইট নেটফ্লিক্স একদিনে এই জায়গায় আসেনি। জনপ্রিয়তার শীর্ষে উঠতে তাদের পাড়ি দিতে হয়েছে দীর্ঘ পথ। নেটফ্লিক্সের পথ চলা শুরু হয় ১৯৯৭ সালে রিড হেসটিংস ও মার্ক রুডলফ এর হাত ধরে। তবে নেটফ্লিক্স শুরু করার চিন্তা প্রথমে রিড হেসটিংসের মাথায় আসে। তিনি আশির দশকে স্ট্যানফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়ার সময় প্রথম এধরণের কিছু প্রতিষ্ঠা করার কথা ভাবতে শুরু করেন৷ সেসময়ে সিনেমার সোনালী যুগ ছিলো বলা যায়। মানুষ তখন অবসরে সিনেমা দেখতে পছন্দ করতো। যারা সিনেমা হলে গিয়ে সিনেমা দেখতে পারতেন না তাদের জন্য ঘরে বসে সিনেমা দেখার সুযোগ করে দিয়েছিলো ব্লকবাস্টার। সেসময়ে ব্লকবাস্টার ছিলো খুবই জনপ্রিয়। পুরো আমেরিকা জুড়ে তাদের শাখা ছিলো। তাদের থেকে গ্রাহকরা ডিভিডি ভাড়া করে দেখতে পারতো। তবে ব্লকবাস্টার গ্রাহকদের ভালো মানের সেবা দিলেও তাদের সমস্যা ছিলো সীমিত সময়। অর্থাৎ শুধু একটি নির্দিষ্ট সময় পর্যন্তই গ্রাহকরা ডিভিডি নিজেদের কাছে রাখতে পারতো এবং সেই সময় ছিলো খুবই কম। নির্দিষ্ট সময়ের মধ্যে ডিভিডি জমা না দিলে জরিমানা গুণতে হতো। একবার রিড হেসটিংসকেও ব্লকবাস্টার থেকে ডিভিডি ভাড়া করে এমন জরিমানা গুনতে হয়েছিলো। সেই থেকে তার মাথায় আসে আরো কিভাবে সহজভাবে গ্রাহকদের কাছে ডিভিডি পৌছে দেয়া যায়। সেই চিন্তা থেকেই তিনি শুরু করেন নেটফ্লিক্স।  শুরুর দিকে নেটফ্লিক্সের গ্রাহক সংখ্যা ছিলো খুবই কম কিন্তু ধীরে ধীরে মানুষ নেটফ্লিক্সকে পছন্দ করতে শ